• ask@obokash.com, obokash.net@gmail.com
  • +88-02-9853475, +88-01945111444

যে জিনিসগুলো নিয়ে বিমানে ভ্রমন করতে পারবেন না

airplane restricted items carry-on

যে জিনিসগুলো নিয়ে বিমানে ভ্রমন করতে পারবেন না

শখের বসে কিংবা প্রয়োজনের তাগিদে ভ্রমন আমাদের জীবনের সাথে ওতপ্রত ভাবে জড়িত। তেমনি ভ্রমনের একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে আকাশপথ। আকাশপথে প্লেন ভ্রমন বেশ সময় সাশ্রয়ী, আর আকাশপথে বিমান ভ্রমনে নিরাপত্তর জন্য রয়েছে কিছু বিধি নিষেধ।

আকাশপথে কিছু জিনিস আছে যেগুলো নিয়ে কোনাভাবেই বিমানে ভ্রমন করা যায় না, আবার কিছু জিনিস আছে যেগুলো ক্যারি অন ব্যাগ(ভ্রমনের সময় যেটি সাথে থাকে) এ রাখা যায় না। তবে লাগেজে বহন করা যায় (যেটি চেক ইনের সময় এয়ারলাইন্স গুলো নিয়ে নেয় এবং ভ্রমনের শেষে লাগেজ বেল্ট থেকে নিয়ে নিতে হয়)

যারা নিয়মিত বিমানে যাতায়ত করেন তারা এই বিধিনিশেষ গুলোর সাথে পরিচিত। তবে যারা একদম ই নতুন, কখনো বিমানে ভ্রমন করেন নি কিংবা খুব শীঘ্রই বিমানে ভ্রমন করতে চাচ্ছেন, তাদের জন্য আমাদের আজকের ব্লগ।

আজকের ব্লগে আমরা জানবো- যে জিনিসগুলো নিয়ে বিমানে ভ্রমন করতে পারবেন না।

০১. তরল দ্রব্য (100ML) এর মধ্যে

বিমান ভ্রমনের সময় টয়লেট্রিজ বা কসমেটিক্স বা জাতীয় তরল দ্রব্য (পেষ্ট, বডি স্প্রে, শ্যম্পু) নেয়ার ব্যাপারে বেশকিছু নিশেধাজ্ঞা আছে, এগুলো অবশ্যই একটি পরিষ্কার সাদা কৌটায় করে নিতে হবে।

এই কৌটা গুলোকে কোয়ার্টার সাইজের জিপার আছে এরকম একটি ব্যাগে রাখতে হবে। টয়লেট্রিজ বা কসমেটিক্স বা জাতীয় তরল দ্রব্য রাখার জন্য কোনো ভাবেই বড় ব্যাগ ব্যবহার করা যাবে না।

 

০২. ধারালো বস্তু

নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে, অনবোর্ড লাগেজে যে কোনো ধরনের ধারালো বস্তু (নেইল কাটার, ছুরি,কাচি ইত্যাদি) নেয়া একদম ই নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে একদম ছোটখাটো এক্সেসরিজ অনবোর্ড লাগেজে নেয়া যায়। কোনো ছুরি, যদি ধারালো হয় কিংবা ফিক্সড ব্লেড ৬সে:মি: এর বেশি হয় তাহলে সেটি নিয়ে বিমানে ভ্রমন করা যাবে না।

 

০৩. দাহ্য পদার্থ

যেকোনো ধরনের দাহ্যা পদার্থ নিয়ে বিমানে ভ্রমন নিষিদ্ধ। এটি খুব স্বাভাবিক বিষয় যে অন্নান্য যেকোনো ভ্রমনের থেকে আকাশপথে ভ্রমনের জন্য বেশি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়। তাই আতশবাজি, এসিড, ব্যাটারি এ ধরনের দাহ্য পদার্থ, যেসব থেকে খুব সহজেই আগুন ধরতে পারে, বা আগুন ছড়িয়ে পরতে পারে তা নিয়ে বিমানে ভ্রমন নিষিদ্ধ।

 

০৪. আগ্নেয়াস্ত্র

নিষিদ্ধ তালিকার ৪ নম্বর জিনিসটি হলো আগ্নেয়াস্ত্র, বিমান ভ্রমনের সময় আপনি আপনার সাথে থাকা লাইসেন্স করা আগ্নেয়াস্ত্রটি নিজের সাথে বহন করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে বিমান কোম্পানীর বিশেষ ফর্ম পূরন করে ঘোষনার মাধ্যমে আগ্নেয়াস্ত্রটি নিতে পারবেন। তবে ভ্রমনের সময় এটি আপনার সাথে থাকবে না। গন্তব্য পৌছানোর পর এটি আপনাকে দেয়া হবে।

 

০৫. আয়রন

চুল শুকানো, স্ট্রেইট করা কিংবা কার্লি করা যেকোনো কাজের জন্যই আয়রন প্রয়োজন হয়। বিশেষ করে নারীদের ট্রাভেল ব্যাগে অয়রন থাকাটাই স্বাভাবিক। কিন্ত বিমান ভ্রমনে গেলে আপনাকে শখের আয়রন খানা বাসাতেই রেখে যেতে হবে। কারন বিমান ভ্রমনের সময় অয়রন সাথে নেয়া নিষিদ্ধ।

 

০৬. যন্ত্রাংশ

ব্যাক্তিগত বা কাজের প্রয়োজনে হলেও যন্ত্রাংশ টাইপের জিনিসপত্র যেমন ড্রিল মেশিন, স্ক্রু ড্রাইভার, করাত সহ সব ধরনের বিমান ভ্রমনে নেয় নিষিদ্ধ।

 

০৭. মেটাল ডিটেক্টর

আপনার হয়তো মনে হতে পারে নিজের প্রয়োজনীয় বস্তুগুলোর নিরাপত্তা চেক করার জন্য মেটাল ডিটেক্টর প্রয়োজন। কিন্ত মজার বিষয় হলো এই বস্তুটি নিয়ে বিমান ভ্রমন করা নিষিদ্ধ।

 

০৮. স্যুপ / তরল খাদ্য দ্রব্য

এয়ারপোর্টের যেকোনো রেস্টুরেন্ট থেকে ফাস্টফুড টাইপের জিনিসপত্র যেমন - বার্গার নিয়ে আপনি বিমানে ভ্রমন করতে পারবেন। কিন্ত ব্যাপারটি যদি হয় স্যুপ, তাহলে এটি আপনাকে এয়ারপোর্টে রেখেই বিমানে ভ্রমন করতে হবে কারন ,স্যুপ একটি তরল পদার্থ আর আমরা শুরুর দিকেই জেনেছি যে তরল পদার্থ নিয়ে বিমানে ভ্রমন নিষিদ্ধ।

 

০৯. স্পোর্টস ইকিউপমেন্ট

সব স্পোর্টস ইকিউপমেন্টের উপর নিষেধাজ্ঞা না থাকলেও নিদৃষ্ট কিছু স্পোর্টস ইকিউপমেন্টের যেমন বেসবল ব্যাট, তীর, ধনুক, ডার্ট এসবের উপর নিষেধাজ্ঞা আছে, অর্থাৎ যে জিনিসের মাধ্যমে নিজের বা অন্যের ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা থাকে এগুলো ক্যারিঅন লাগেজে বহন করা যাবে না।

ভ্রমন সম্পর্কিত এরকম আরো গুরুত্বপূর্ন তথ্যের জন্য আমাদের ব্লগের অন্য পেজ গুলো দেখতে পারেন। এছাড়াও বিদেশ ভ্রমন এবং ভিসা সংক্রান্ত তথ্যের জন্য সরাসরি আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

Add Comment